চকরিয়ায় যুককের হাতে অস্ত্রের ছবি নিয়ে তোলপাড়

প্রকাশ: ২০১৯-০৮-২৩ ১১:০৯:১৮ || আপডেট: ২০১৯-০৮-২৩ ১১:৩১:৩১

পেকুয়া প্রতিনিধি, ২৩ আগস্ট ১৯ ইং

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলায় যুবকের প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়ার ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। অস্ত্রের মহড়ার ঘটনার এক সপ্তাহ পার হয়ে গেলেও অবৈধ অস্ত্রটি উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। এ নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। তবে পুলিশ বলছে, কোন অপরাধীকে ছাড় দেয়া হবে না।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, গত ১ আগস্ট চকরিয়ার ঢেমুমিয়া নতুন বাজারে কোন কারণ ছাড়াই সাধারন লোকজনেরর মাঝেভীতি ছড়াতে গুলিছুড়ে স্থানীয় সেলিম-সহিদ বাহিনীর সদস্যরা। এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন পথচারি নিআহত হয়ে চিকিৎসা নেয়। এ নিয়ে চকরিয়া থানায় মামলাও হয়েছে। একজন আসামী কারাগারেও রয়েছে।

অপর দিকে গত ১৬ আগস্ট ঢেমুশিয়া সংলগ্ন কেনাখালী এলাকার মৃত আমিরুল মোস্তফা চৌধুরীর ছেলে আসফি বাহিনীর প্রধান আসফিসহ অপর এক বন্ধুকধারী সহয়োগিদের নিয়ে দিনে দুপুরে চাঁদার দাবীতে জন সম্মূখে এক অসহায় কৃষকের জমিতে গিয়ে ফাঁকাগুলি বর্ষণ করে ভীতি প্রদর্শন করে। প্রায় সময় আসফি সহ কয়েক যুবক এলাকায় প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া দেয়।

প্রকাশ্যে অস্ত্র নিয়ে মহড়া প্রসঙ্গে জানতে আসফির সাথে যোগাযোগ করে বক্তব্য নেওয়ার জন্য একাধিকবার চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে ঢেমুশিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান রুস্তম আলী জানান, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে চিরুনি অভিযান প্রয়োজন।

তিনি প্রশাসনের কাছে অবৈধ অস্ত্রধারীদের গ্রেফতার করতে জোরদাবী জানান।

এ বিষয়ে চকরিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শফিকুল আলম চৌধুরী জানান, ‘অবৈধ অস্ত্রধারী এবং অস্ত্র কেনা-বেচার উৎস্যসহ সংঘবদ্ধ চক্রকে গ্রেফতারে আমাদের নিয়মিত অভিযান অব্যাহত আছে। এছাড়া অবৈধ অস্ত্র ব্যবহারকারীদের ধরতে বিভিন্ন এলাকায় সাঁড়াশি অভিযানের চিন্তা রয়েছে। সন্ত্রাসী যেই হোক না কেন? তাদের ছাড় নেই।

ট্যাগ :