আলোকিত কক্সবাজার"কক্সবাজারে ৩৫ টি স্পটে পাওয়া যাবে ফ্রি-ওয়াইফাই " - আলোকিত কক্সবাজার "কক্সবাজারে ৩৫ টি স্পটে পাওয়া যাবে ফ্রি-ওয়াইফাই " - আলোকিত কক্সবাজার

“কক্সবাজারে ৩৫ টি স্পটে পাওয়া যাবে ফ্রি-ওয়াইফাই “

প্রকাশ: ২০২০-০২-১৫ ১৬:০৬:৪৫ || আপডেট: ২০২০-০২-১৫ ১৬:০৬:৪৫

ওয়াহিদ রুবেল, কক্সবাজার ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্রসৈকত কক্সবাজারে গুরুত্বপূর্ণ ৩৫টি স্থানে ফ্রি ওয়াই-ফাই জোন উদ্ভোধন করা হয়ছে। শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে এক সভায় সরকারের শিক্ষা ও আইসিটি মন্ত্রনালয়ের প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এ জোনের উদ্ভোধন করেন

কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধানে এ ওয়াইফান জোন এক বছর চালু থাকবে। পরবর্তীতে তাদের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

এখন থেকে কক্সবাজারের প্রতিদিন স্থানীয় ও পর্যটক মিলে প্রায় ৩৮ হাজার লোক ফ্রি ওয়াইফাই ব্যবহার করতে পারবেন।

উদ্ভোধনী অনুষ্ঠােনর সভাপিতত্ব করেন বাংলােদশ কম্পিউটার কাউন্সিল সেলের নির্বাহী পরিচালক পার্থ প্রিতম দেব।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রতিটি ওয়াইফাই ডিভাইস আনুমানিক ২৭২৮ বর্গমিটার বা ৩০ মিটার রেডিয়াস জায়গা বিস্তার করবে। ৭৪ টি ডিভাইস ৩০০ এমবিপিএস ব্যান্ডউয়িথ দেয়া আছে যা প্রতিজন ২০ এমবিপিএস স্পীডে ইন্টারনেট ব্রাউজ করতে পারবেন এবং প্রতিটি ডিভাইস সর্বোচ্চ ১০০ জন ব্যবহারকারিকে যুক্ত করবে।

মন্ত্রী আরো বলেন, বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী ২০২১ সালের মধ্যে ১৬ কোটি মানুষের হাতে সুলভমূল্যে ইন্টারনেট পৌঁছে দেবে। সে লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার। সরকার প্রযুক্তি নির্ভর মেধাভিত্তিক ও আধুনিক অর্থনীতি গড়ে তোলার জন্য কাজ করছে।

প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দেশকে দুর্নীতিমুক্ত করা সম্ভব উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, এ দায়িত্ব নিতে হবে নতুন প্রজন্মকে। আর সে জন্য আমাদের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ নতুন প্রজন্মকে প্রশিক্ষিত করে দক্ষ জনশক্তিতে পরিণত করতে কাজ করছেন। সে লক্ষ্যে প্রত্যেক জেলায় জেলায় শেখ কামাল আইসিটি পার্ক করা হবে। শিক্ষিত জনগোষ্ঠী প্রযুক্তি জ্ঞান অর্জন করতে পারলে তারা ঘরে বসেই আয় করতে পারবেন। এতে বিদেশে যাওয়ার চিন্তা করবে না আমাদের তরুন প্রজন্মের ছেলেরা।

এদিকে, যেসব এলাকায় ওয়াইফাই পাওয়া যাবে তা হচ্ছে, সুগন্ধ্যা পয়েন্ট,সাইমন বীচ,লাবনী বীচ,কলাতলী বীচ, বিয়াম ভবন, ডলফিন চত্বর, হোটেল মোটেল রোড,জাম্বুর মোড়,রূপচাঁদ ভাস্কর্য, সম্পাদক ভাস্কর্য, হলিড়ে মোড়,প্রেসক্লাব, পুরাতন স্টেডিয়াম, বার্মিজ মার্কেট, রোডকচ্ছপিয়া পুকুর,সার্কিট হাউজ, গোল দিঘি, বনবিভাগ উত্তর ও দক্ষিণ, জেলা প্রশাসানের কার্যালয়, পাবলিক লাইব্রেরী, দৌলদ ময়দান, শহিদ মিনার,জজ কোর্ট, পুলিশ সুপার কার্যালয়, জেলা পরিষদ, হিলটাইন সার্কিট হাউজ, হিল টপ সার্কিট হাউজ, রাডার স্টেশন, কক্সবাজার উন্নয়ন কতৃপক, গণপূর্ত অধিদপ্তর কার্যালয়, লারপাড়া বাস স্ট্যান্ড, হিমছড়ি ও দড়িয়ানগর।

বিনামূল্যে ওয়াইফাই সুবিধা পেয়ে খুশি স্থানীয়রা।

কক্সবাজার শহেরর বাসিন্দা মুরাদ বেলন, “বাংলােদশ যে এগিয়ে যাচ্ছে এটাই তার বড় প্রমাণ। কয়েক বছর আগেও আমরা যা কল্পনাও করেত পারতাম না, এখন ঘরে বসে তা পাচ্ছি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, কক্সবাজার-৩ আসনের সাংসদ সাইমুম সরওয়ার কমল, কক্সবাজার-২ আসনের সাংসদ আশেক উল্লাহ রফিক, কক্সবাজার-১ আসনের সাংসদ জাফর আলম, কক্সবাজার উন্নয়ন কতৃপক্ষের চেয়ারম্যান কর্ণেল (অব.) ফোরকান আহমেদ, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( শিক্ষা ও আইসিটি) মো. আমিন আল পারভেজ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোঃ ইকবাল হোসাইন।

ট্যাগ :

আর্কাইভ

জুন 2020
রবি সোম বুধ বৃহ. শু. শনি
« মে    
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930  
দৃষ্টি আকর্ষণ