নোটিশঃ
যান্ত্রিক  কারনে সাময়িক সমস্যার জন্য আন্তিরকভাবে দুঃখিত - আলোকিত কক্সবাজার পরিবারে যুক্ত থাকায় আপনার কাছে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ
আলোর মুখ দেখছেনা ঈদগাঁও ভাদীতলা-দরগাহ সড়কের ব্রীজ

আলোর মুখ দেখছেনা ঈদগাঁও ভাদীতলা-দরগাহ সড়কের ব্রীজ

Exif_JPEG_420

এম আবুহেনা সাগর,ঈদগাঁও

বৃহৎ জনগোষ্টি অধ্যুষিত এলাকা ঈদগাঁওর ভাদীতলা এলাকাটি। সড়কে দৈনিক যাতায়াতের ক্ষেত্রে একটি ব্রীজের অভাবে জন দূর্ভোগে পড়েছে শিক্ষার্থী,চাকরীজিবী,রোগীসহ সর্বশ্রনী পেশার প্রায় বিশ হাজার লোকজন। এটি যেন দীর্ঘ বছরেও আলোর মুখ দেখছেনা। হতাশ হয়ে পড়েছেন এলাকাবাসী।

তথ্য মতে, বিগত দশ বছর পূর্বে ঈদগাঁও দরগাহ ও ভাদীতলা পাড়াসহ বৃহত্তর এলাকায় আসা যাওয়ার জন্য বহুলাখ টাকা ব্যয় করে একটি ঢেউ ব্রীজ  করে ছিল সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ। কিন্তু সেটি নির্মানের মাসাধিক সময় পার হতে না হতেই সে সময়ের বর্ষাকালে পানির প্রবল তোড়ে ভেঙ্গে তছনছ হয়ে যায়। এর পরর্বতী সময় থেকে এলাকার লোকজন কাঠের উপর ভর করে কোন রকম জন ও যানবাহন চলাচলের জন্য উপযোগী করে তুলে ভাঙ্গনকৃত পয়েন্ট টি। সে থেকে এ পর্যন্তও ঝুকিঁপূর্ণ কাঠের সাকো দিয়ে ছোট যান বাহনসহ মানুষ চলাফেরা করে যাচ্ছে কষ্টের বিনিময়ে।

সড়ক দিয়ে চলাচলকারীরা লোকজন প্রতিবেদককে জানান, কাঠের নির্মিত সাকোটি যদি ব্রীজে রুপান্তরিত না হয়,তাহলে চলাচলের ক্ষেত্রে বিপুল সংখ্যক লোকজনকে পোহাতে হবে নানা দূর্ভোগ আর দূর্গতি। যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ থাকলে কলেজ গেইট সড়ক দিয়ে নানা কষ্টের মধ্য দিয়ে যাতাযাত করতে হয় বলেও জানান তারা।

ঈদগাঁও বাশষ্টেশনের দরগাহ গেইট হয়ে (ছিকন ঝুরি) নামক স্থানে কাঠের সাকোটি দিয়ে কোন মতে চলাফেরা করছে বৃহত্তর এলাকার জনগোষ্টি। পাশাপাশি স্কুল,কলেজ ও মাদ্রাসা পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা দৈনিক তাদের প্রিয় শিক্ষা প্রতিষ্টানে যাতায়াত করতে নিদারুন কষ্ট পাচ্ছে। মূর্মূষ রোগী হলেই তো কথায় নেই।

পূর্বে ঈদগাঁও পালপাড়া সড়ক সংস্কারের সময় পাহাড়ী ইউনিয়ন ঈদগড় আর ঈদগাঁওর ভোমরিয়াঘোনার লোকজন ছাড়াও অসংখ্য যানবাহন চলাচল করে ছিল দরগাহ পাড়া সড়ক হয়ে। এমন এক জনগুরুত্বপূর্ন সড়কে একটি ব্রীজের অভাবে মহাদূর্ভোগে পড়েছে বিশ হাজার নারী পুরুষ।

কক্সবাজার প্রতিদিনের প্রতিবেদক ৬ অক্টোবর বিকেলে জরার্জীণ কাঠের সাঁকো পরিদর্শনে গেলে সড়কের এক প্রান্তে কাপেটিং করলে ও ব্রীজ না থাকায় পরিপূর্ণ কাপেটিংয়ের সুযোগ সুবিধা থেকে লোক জন বঞ্চিত হওয়ার চিত্র চোখে পড়ে।

কজন পথচারীর মতে,দীর্ঘ বছর ধরে ব্রীজের অভাবে যোগাযোগে নানাভাবে কষ্ট পাচ্ছে অসহায় এলাকাবাসী। সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের সুনজর না থাকায় দীর্ঘকাল ধরে এলাকাবাসী একটি ব্রীজ পাচ্ছেনা যার কারনে এলাকার লোকজন ব্রীজটি নির্মানের দাবী জানান।  এ সড়ক দিয়ে হাসিনা পাহাড়,দরগাহ পাড়া,ভাদী তলা,কোনাপাড়া ও শিয়াপাড়ার প্রায় ১৮ থেকে ২০ হাজার লোকজন যাতাযাত করে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত কোন না কোন কাজেকর্মে।

স্থানীয় ওর্য়াড় আ,লীগ সভাপতি মনজুর আলম,সাধারন সম্পাদক নুরুল হাকিম নুকি জানিয়েছেন,দীর্ঘ ১০/১২ বছর ধরে ব্রীজটি কোন প্রকার আলোর মুখ দেখছেনা। অতিসত্তর এলাকাবাসীর স্বার্থে ঈদগাঁও ভাদীতলা সড়কে ব্রীজ নির্মান করা হোক।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আবহাওয়া

COX'S BAZAR WEATHER