আলোকিত কক্সবাজার'আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় সেনাবাহিনী" - আলোকিত কক্সবাজার 'আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় সেনাবাহিনী" - আলোকিত কক্সবাজার

‘আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় সেনাবাহিনী”

প্রকাশ: ২০২০-০৫-২২ ১৭:৪০:১৯ || আপডেট: ২০২০-০৫-২২ ১৭:৪০:১৯

মো: নাহিদ:

কক্সবাজারে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যেই সুপার সাইক্লোন ‘আম্ফান’ পরবর্তী দুর্যোগ মোকাবিলায় সার্বিক ত্রাণ, উদ্ধার ও চিকিৎসা সহায়তা কার্যক্রম শুরু করেছে সেনাবাহিনী। শুক্রবার (২২মে) চট্টগ্রাম জেলার চারটি উপজেলার লোহাগারা উপজেলার বড়হাতিয়া, কক্সবাজার জেলা পেকুয়া রাবার ড্যাম, খুরুশকুল ইউনিয়ন ও চৌফলদন্ডী ইউনিয়নের বিভিন্ন দুর্গত এলাকায় সেনাবাহিনী বাঁধের ক্ষতিগ্রস্ত অংশ মেরামত, ভেঙে পড়া ঘরবাড়ির ছাউনি, টিনের চাল, ঘরের বেড়া ইত্যাদি মেরামত করতে দুর্গত লোকদের পাশে দাঁড়িয়েছে। পাশাপাশি খুরুশকুল ইউনিয়নের ‘রাস্তারপাড়া’ এলাকায় কালভার্টের মাটি ধসে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়া রাস্তা মেরামত করার জন্য রামু সেনানিবাসের ৬ ইঞ্জিনিয়ার্সের তত্ত্বাবধানেস শুক্রবার দিনব্যাপী কাজ করে রাস্তা ঠিক করা হয়েছে।

এছাড়া সেনাবাহিনীর ১০টি মেডিকেল টিমের মাধ্যমে শুক্রবার কক্সবাজার জেলার ডেলা, শুটকি পাড়া, খুরুশকুল সহ কক্সবাজার শহরের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিশেষ মেডিকেল ক্যাম্পেইন পরিচালনা করে সহস্রাধিক দুর্গত ও অসহায় মানুষদের বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা ও ওষুধ বিতরণ করেছে সেনাবাহিনী।

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ক্ষয়ক্ষতি রোধ করতে সেনা প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদের দিক-নির্দেশনায় আগে থেকেই সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশনের পক্ষ থেকে প্রস্তুত রাখা হয়।

উখিয়া-টেকনাফে অবস্থান নেয়া জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মায়ানমার নাগরিকদের ঘূর্ণিঝড় প্রাক ও পরবর্তী সচেতনতা, উদ্ধার কার্যক্রম, ত্রাণ তৎপরতা ও চিকিৎসাসেবা প্রদানে যথাযথ প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিল সেনা বাহিনী। বর্তমানে তারা ঘূর্ণিঝড় আক্রান্ত এলাকাগুলোতে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি, রাস্তাঘাট ও বাঁধ পুনঃনির্মাণে স্থানীয়দের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করছে।

পাশাপাশি দুর্যোগ প্রবণ এলাকাগুলোতে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সহায়তা প্রদানের জন্য রামু সেনানিবাসের ১০টি মেডিক্যাল টিম গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে একযোগে কাজ করছে।

সেনা বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়, ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের প্রাক প্রস্তুতি হিসাবে ৩৪ টি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গত ১৮ই মে সোমবার প্রায় ১০ হাজার প্রশিক্ষিত রোহিঙ্গা ভলান্টিয়ারদের নিয়ে সেনাবাহিনী ব্যাপক আকারে মহড়া কার্যক্রম পরিচালনা করে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’ তাণ্ডবে ঝড়ো বাতাসে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ির বেড়া, চালা মেরামত করতে সেনাবাহিনী সাধারণ রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়িয়েছে।

পাশাপাশি জেলা প্রশাসন, শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশন, বিভিন্ন এনজিও এবং আইএনজিও সমূহের সাথে রোহিঙ্গাদের দুর্যোগ পরবর্তী সার্বিক সহযোগিতা নিশ্চিত করতে সেনাবাহিনী প্রতিনিয়ত সমন্বয় করে চলেছে ।

ট্যাগ :

আর্কাইভ

জুন 2020
রবি সোম বুধ বৃহ. শু. শনি
« মে    
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930  
দৃষ্টি আকর্ষণ